পেশায় স্কুল শিক্ষিকা কিন্তু মুসলিম ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য যা করলেন! তাতে হতবাক সবাই

একজন শিক্ষিকার মন যে এমন হতে পারে তা কেও কল্পনাই করতে পারছে না ।সত্যি এই বিষয়টি গোটা মুসলিম সমাজকে স্তম্ভিত করলো। দেশের চারিদিকে যখন ধর্ম নিয়ে রাজনীতি তুঙ্গে এবং দিন দিন মানুষের মধ্যে যে ধর্মের ভেদাভেদ তৈরি হচ্ছে সেখানে এই শিক্ষিকা এক নতুন দৃষ্টান্ত তৈরি করলেন। তিনি তার প্রিয় ছাত্রদের ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গে যা করলেন তাতে শুধু মুসলিম সমাজই নয় গোটা সমাজের ওপর ব্যাপক প্রভাব ফেলবে।


এই স্কুল শিক্ষিকা হলেন রিতা সাহা যিনি বর্তমানে বাঁকুড়া জেলার সোনামুখী বি জে হাই স্কুলে কর্মরত।
মুসলিম ধর্মালম্বী মানুষদের কাছে এই মাসটি হলো পবিত্র মাস কারণ এটি হলো রমজান মাস। এই মাসে প্রতিটি মুসলমান ছাত্র ও ছাত্রী রোজা পালন করে আর এই রোজা তারা ইফতারের মাধ্যমে খোলে। ইফতারির সময় বিভিন্ন রকমের ফল ও নানা ধরনের খাবার থাকে। রিতা সাহা এই স্কুলের শিক্ষিকা তিনি ঠিক করেছেন স্কুলের প্রতিটি মুসলমান ছাত্র-ছাত্রী যারা রোজা করবে তাদের তিনি ইফতার পার্টি দেবেন। এই ইফতার পার্টিতে তিনি বিভিন্ন রকমের ফল ও আরো নানা ধরনের খাবার খাইয়েছেন আর তাই দেখে গোটা মুসলমান সমাজ খুবই আনন্দ প্রকাশ করেছেন। রিতা সাহা বর্তমানে সমাজের এক জলজ্যান্ত সম্প্রীতি হৃদয়ের উদাহরণ।


সূর্যাস্তের পর যে পানাহারের মাধ্যমে রোজা ভাঙে তাকে ইফতার বলে।
ইফতার পার্টিতে খেজুর তরমুজ,আপেল,কলা, মোরব্বা,আঙ্গুর সহ অন্যান্য ফল ,জুস ও মিষ্টি এবং রমজানের বিশেষ পানীয় পরিবেশন করা হয় রোজাদারদের।
রিতা সাহা বলেন এই পবিত্র মাসে রোজা রাখা প্রতিটি ছেলেমেয়েকে খাওয়াতে পেরে আমি খুবই খুশি ভবিষ্যতেও আমি এটি চালিয়ে যেতে চাই।

Leave a Comment