১৭ বছরের পুরনো পলাশ গাছ, আবারো কিভাবে জেগে উঠলো এলাকার বুকে? দেখুন, সেই অদ্ভুতুড়ে কান্ড…

মলয় দে নদীয়া :- একবার ভাবুন তো! নদীয়ার বুকে এই ঘটনা কে আজ অদ্ভুতুড়ে বলব না অন্য কিছু?কিভাবে সম্ভব ঝরে উপরে যাওয়া ১৭ বছর বয়সী একটি পলাশ গাছকে, পুনরায় জ্যান্ত করে তোলা?তবে আধুনিকতার এই সমাজে, সবকিছুই যে সম্ভব,তারই প্রমাণ পাওয়া গেল এই নদীয়ার মাটিতে…তবে, চারা গাছ রোপন সমস্ত জায়গায় দেখা গেলেও ঝড়ে উপড়ে পড়া গাছ পুনরায় রোপন করার নজিরবিহীন ঘটনা কিন্তু সচরাচর দেখা যায় না। নদিয়ার শান্তিপুর শহরের পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের থানার মাঠের একটি কোনায় 2017 সালে এলাকার কিছু শুভবুদ্ধি সম্পন্ন মানুষদের উদ্যোগে রোপিত একটি পলাশ গাছ। পলাশ গাছ পরিবেশের বাস্তুতন্ত্রের ভারসাম্য বজায় রাখতে অন্যতম ভূমিকা পালন করে থাকে। সাম্প্রতিক কালে ঘূর্ণিঝড়ের কারণে থানার মাঠ সংলগ্ন সেই প্রাচীন ১৭ বছরের সুবিশাল পলাশ গাছ মাটি থেকে উপড়ে যায়।

আর তারপরেই স্থানীয় এলাকাবাসীদের উদ্যোগে আজ অর্থাৎ শনিবার শান্তিপুর পৌরসভার করে এনে মাটি খুঁড়ে, সেই গাছ পুনরায় বাঁচানোর জন্য করা হল রোপন।ঝড়ে উপড়ানো গাছকে সাধারণত সংখ্যায় খুব কম হলেও কিছু স্বার্থান্বেষী লোভী মানুষ এবং অসৎ ব্যবসায়ীর তরফ থেকে কেটে খন্ড খন্ড করে নিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়াই চলে থাকে। তবে সাধারণ মানুষের উদ্যোগে পুনরায় রোপন করার এই অভিনব উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছে শান্তিপুর পৌরসভার চেয়ারম্যান নিজেও। পৌরসভার চেয়ারম্যান সুব্রত ঘোষ নিজে ঘটনাস্থলে এসে এলাকাবাসীদের সঙ্গে গাছটিকে পুনরায় রোপন করার জন্য হাত লাগান।