১৫ বছর ধরে বাড়ির ছেলেকে, কেন রাখা হয়েছে এমন অমানবিক অবস্থায়? দেখুন, চোখের জল ধরে রাখতে না পারা সেই দৃশ্য……

সংকল্প দে দক্ষিণ ২৪ পরগনা :- র্টহায়রে, সে আল্লাহ হোক বা ঈশ্বর! কেন তার সাথেই তুমি এমনটা করলে?কি এমন দোষ করেছিল সে, যার জেরে আজ বাড়ির জ্বলন্ত প্রদীপকে ১৫ বছর ধরে রাখতে হয়েছে এমন করুন ভাবে?দেখুন, বর্তমান সমাজে দাঁড়িয়েও এই ছেলেটির, সেই করুন দৃশ্য……চিকিৎসার অভাবে শীকল বন্দি যুবক

,স্থানীয় সূত্রে জানা যায় দক্ষিণ ২৪ পরগনার রায়দিঘী থানার শ্রীফলতলা এলাকার যুবক ইব্রাহিম মোল্লা,তার বয়স আনুমানিক ৩৬ বছর, দীর্ঘদিন ধরে রায়দিঘী এলাকার ব্যবসায়ী ছিলেন ইব্রাহিম,হঠাৎ শারীরিক অসুস্থতার কারণে ইব্রাহিমের মাথায় সমস্যা হয়ে যায়। পরিবার থেকে বারে বারে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয় মেন্টাল হসপিটালে, কিন্তু তা সুরাহ মেলেনি, দরিদ্র পরিবারের হওয়ার কারণে চিকিৎসা ঠিকমতো পাচ্ছে না ইব্রাহিম,

বর্তমানে চিকিৎসার অভাবে ইব্রাহিম শীকল বন্দী অবস্থায় ঘুরে বেড়াচ্ছে প্রায় ১৫ বছর ধরে তার এই অবস্থা দেখে স্থানীয় বাসিন্দারা সরকারি সাহায্যের আশ্বাস জানান…..কিন্তু আজ আমরা সোশ্যাল মিডিয়ার উপর ভর করে পারিনা, এই ছেলেটিকে একটি সুস্থ স্বাভাবিক জীবন দিতে?তাই আজ একবার আসুন না চেষ্টা করে দেখি, আমরা কিছু করতে পারি কিনা…