ভালো ছেলে হওয়া সত্বেও, কিভাবে তার মাথার ফিউজ কেটে গেল? দেখুন, একজনকে ধরতে গিয়ে কিভাবে উদ্ধার হলো একের পর চুরির সামগ্রী….

মলয় দে নদীয়া :-হ্যাঁ, এরই নাম নদীয়া..যে নদী আজ পরিণত হয়েছে দুর্নীতি আর দুর্নীতির আতর ঘরে। কিন্তু, নদী আপুকে এই ঘটনা যেন সত্যিই অপ্রত্যাশিত কারণ, সে সকলের চোখে ভালো ছেলে হলেও আজ নেশার টানে দেখুন তাকে ধরতেই কিভাবে বেরিয়ে এল কেউটে….চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি নদীয়ার শান্তিপুর শহরের রেল স্টেশন সংলগ্ন এলাকার আজ দুপুর আনুমানিক বারোটা নাগাদ শান্তিপুর বাইগাছি পাড়ার নাম না জানা এক যুবককে নেশাগ্রস্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে তিন দিন আগে বাইগাছি বিশ্বাস পাড়ার সুমন অধিকারীর চুরি হওয়া সাইকেল সম্পর্কে জিজ্ঞেসাবাদ করতে থাকে।

তার কাছ থেকে একটি নাম জেনে ক্রেতার হদিস পাওয়া যায় এবং সেখান থেকেই একটি লোহা লক্করের ভাঙ্গরির দোকান থেকে উদ্ধার হয় সেই সাইকেল এরপর পুলিশ প্রশাসনের হাতে তুলে দেয় উত্তেজিত এলাকাবাসী। সাইকেল মালিক সুমন অধিকারী জানায়, নাম না জানলেও এই যুবককে সে চেনে ,অত্যাধিক নেশা গ্রস্ত অবস্থায় থাকে সবসময় তবে এ নেশা সাধারণ মদ কিংবা গাঁজার নয় হিরোইনের নেশা করে সে, আর নেশার টাকা জোগাড় করতেই মূলত তার এই চুরি না হলে ও ভালো ঘরের ছেলে বাইগাছি মোড়ে একটি চায়ের দোকান আছে ওদের।তবে আজ হয়তো কোনো চুরি করে নি সে তবে অতীতে বিভিন্ন চুরির সাথে তার যোগাযোগ আছে পুলিশ প্রশাসন তার সাথে যোগাযোগকারী বিভিন্ন ব্যক্তির খোঁজ খবর পেয়ে হয়তো উদ্ধার হতে পারে আরো বেশ কিছু চুরি হওয়া জিনিসপত্র।