বাঁকুড়ার কাঁকুড়ে মাটিতে, এ কেমন অদ্ভুতুড়ে গাছের দেখা? দেখুন, এক্ষুনি….

আব্দুল হাই বাঁকুড়া :- কি খুব অবাক হচ্ছেন?ভাবছেন! হঠাৎ এই গাছের কিভাবে উদ্ভব হলো খোদ বাঁকুড়ার মাটিতে?তবে এই মুহূর্তে, আপনি যা দেখছেন তা একেবারেই সত্যি ঘটনা…..আর এই ঘটনা প্রথমে সবাই দেখে চমকে উঠলেও, দেখুন কিভাবে বাঁকুড়ার কাঁকুড়ে মাটিতে ফল্য রেড আইভারি ও অ্যাপেল ম্যাংগো র মতন এমন সুস্বাদু গাছ….ছাতনার কাঁকুরে মাটিতে ফলছে চিয়াং মাই, রেড আইভরি, আপেল ম্যাঙ্গো এবং ব্যানানা ম্যাঙ্গো।

এই ধরনের আমের প্রজাতি গুলি বাঁকুড়ার কাঁকুড়ে সামন্তভূম ছাতনায় উৎপাদিত হতে পারে কারোর কল্পনা তো ছিল না এতদিন। রাজ্য সরকার পরিকল্পিত সাতটি প্রকল্প রয়েছে ছাতনায়। এই সাত প্রকল্পের মধ্যে একটি হল ছাতনা ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের জনার্দনপুরের মাটির সৃষ্টি প্রকল্প।

এই প্রকল্পের অন্তর্গত এই পরীক্ষামূলক কর্মসূচি। কৃষ্ণনগর থেকে বিদেশী আম চারা নিয়ে এসে টবে বসানোর পর মিরাকেলের মতই চারটি আমের চারাই দিয়েছে খুব সুন্দর ফলন। ৬০০-৬৫০ গ্রামের আপেল ম্যাঙ্গো, ৮০০-৯০০ গ্রামের রেড আইভরি। পরবর্তীকালে এই চারা বাঁকুড়ার চাষীদের মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে জানা গিয়েছে।

এতদিন শুধুমাত্র আম্রপালি চাষেই জোর দেওয়া হতো এই এলাকায়। তবে বর্তমানে অন্যান্য আরও আম চাষে দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে বাঁকুড়া। ছাতনার কাঁকুরে মাটিতে পরীক্ষিত হল এই চার চারা, আর তাতেই মিলেছে সাফল্য। এবার সঠিক চারা সাধারণ মানুষের কাছে পোঁছে দেওয়া শুধুমাত্র সময়ের অপেক্ষা।