গৃহস্থের বাড়িতে মাটি খুঁড়তেই, না কোন খাজানা নয়, বরং দেখুন, একের পর এক কি বেরিয়ে এলো……

মলয় দে নদীয়া :- হায়রে, গৃহস্থ বাড়ি হয়তো ভেবেছিল, তাদের দুঃখের দিন শেষ, কারণ, তাদের বাড়ির মাটি খুরতেই, বেরোনোর কথা ছিল কোন গুপ্তধনের, কিন্তু শেষমেষ যে একের পর এক এমন সব বেরিয়ে আসবে যে ভিডিও না দেখলে হয়তো আপনি বুঝতেই পারবেন না ….নদীয়ার শান্তিপুর থানা এলাকার ১৬ নম্বর ওয়ার্ডের শ্যামচাঁদ ঘাট এলাকার ঘটনা।

গৃহস্থ বাড়ির সদস্য সনাতন বিশ্বাসের দাবি, আজ সকালে একটি গোখরো সাপের বাচ্চা তারা প্রথমে দেখতে পান, এরপর ঘরের ভিতরে গিয়ে দেখে একাধিক গর্ত রয়েছে। শুরু হয় মাটি খোঁড়ার কাজ, খবর দেয়া হয় বনদপ্তরকে, ঘটনাস্থলে বনদপ্তরের কর্মীরা এসে কাজে হাত লাগান, এরপর বেরিয়ে আসে একের পর এক গোখরো সাপের বাচ্চা।

যদিও অল্প সময়ের মধ্যে দুটি গোখরো সাপের বাচ্চাকে উদ্ধার করে বনদপ্তরের কর্মীরা, এরপর গৃহস্থ বাড়ি ছেড়ে চলে যান। যদিও এখানেই শেষ নয়, চলতে থাকে ঘরের মাটি খোঁড়ার কাজ, এরপর উদ্ধার হয় আরো বেশ কয়েকটি গোখরো সাপের বাচ্চা। যদিও এই ঘটনায় আতঙ্ক সৃষ্টিয় হয় পরিবারের মধ্যে, প্রচুর সংখ্যক প্রতিবেশীদের ভিড় করে ওই গৃহস্থ বাড়িতে। সূত্রের খবর এখনো পর্যন্ত ৬ টি সাপ উদ্ধার হয়েছে। যদিও বনদপ্তরের কর্মীরা জানিয়েছেন, বর্ষাকালের জন্যই এই সাপের উপদ্রব বেড়েছে। কোন বিষধর সাপকে না হত্যা করে বনদপ্তরকে খবর দেওয়া উচিত।